হিমা দাস — ধিং এক্সপ্রেস

কুশল চৌধুরী

Translation from English to Bengali by Kanej Roksana

ফটোঃ ২০১৮ সালের আইএএএফ বিশ্ব অনুর্ধ্ব ২০ চ্যাম্পিয়নশীপ ট্যাম্পেয়ার, ফটো এরিক ভ্যান লিউভেন।

আসামের হিমা দাস ভারতের ৪০০ মিটার স্প্রিন্টের জাতীয় রেকর্ডধারী দৌড়বিদ। ২১ বছর বয়সী হিমা দলিত সম্প্রদায়ের একজন নারী। তিনি অসংখ্য আন্তর্জাতিক ইভেন্টে অংশ নিয়েছেন এবং নিয়মিত বিভিন্ন পদক জিতেছেন। ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত এশিয়ান গেমসে তিনি জাতীয় রেকর্ড করেন।

আসাম রাজ্যের ধিং শহরের কাছে কান্দুলিমারী গ্রামে ২০০০ সালের ৯ জানুয়ারী হিমা জন্মগ্রহন করেন। তার মা জোনালী দাস এবং বাবা রণজিৎ দাস পেশায় কৃষক। বাবাই হিমার প্রথম কোচ ছিলেন। মাত্র ৯ বছর বয়সে তিনি হিমাকে কোচিং করাতে শুরু করেন। মা জোনালী জানান হিমা শৈশব থেকেই প্রতিযোগী মনোভাবের ছিল।

স্কুে খেলাধুলার শিক্ষক শামসুল হক হিমাকে সমর্থন দিয়ে আসছিলেন। তিনিই প্রথম হিমার মেধা লক্ষ্য করেন। প্রথমে হিমা ফুটবলে আগ্রহী ছিলেন। স্কুল ফুটবল টিম আর স্থানীয় ফুটবল ক্লাবের হয়ে ফুটবল খেলতেন তিনি। তার শিক্ষক শামসুল হক তাকে দলীয় খেলা ফুটবলের চেয়ে বরং একটি একক খেলা বেছে নেওয়ার পরামর্শ দেন কারণ ফুটবলের মতো একটি দলীয় খেলায় ক্যারিয়ার গড়া কঠিন হতে পারে বলে তিনি মনে করতেন। দৌড়ানো পছন্দ করে জেলা ও রাজ্য স্তরে প্রতিযোগিতা শুরু করেন হিমা। নিপুন দাস ২০১৭ সালে তার হৃদয়গ্রাহী মেধা লক্ষ্য করেন। বর্তমানে নিপুন দাসই তার গুরু। তার জয়ের ধারা এবং গৌরব অর্জনের জন্য নিপুন মূল্যবান সমর্থন দিয়ে আসছেন। নিপুন তাকে ও তার পরিবারকে বুঝিয়ে অপেক্ষাকৃত ভালো খেলাধুলার সুযোগ সুবিধা থাকা গুয়াহাটি শহরে হিমার প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করেন।

দেড় বছরের কঠিন প্রশিক্ষণের পরে হিমা ফিনল্যান্ডের ট্যাম্পেয়ারে অনুষ্ঠিত অনুর্ধ্ব বিশ আইএএএফ (ইন্টান্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনস) বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন্সশিপে অংশগ্রহন করেন। তখন তার বয়স ছিল ১৯ বছর। ৪০০ মিটার ইভেন্টে তিনি সোনা জেতেন এতে তার সময় লাগে ৫১.৪৬ সেকেন্ড। যেকোন পর্যায়ের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জেতা প্রথম ভারতীয় তিনি। এর উপরে ৪০০ মিটার স্প্রিন্টে তিনি ৫১.৪৬ সেকেন্ডে জাতীয় রেকর্ড গড়েন। একই বছরে এশিয়ান গেমস ২০১৮ তে তিনি নিজের রেকর্ড ভেঙ্গে ৫০.৭৯ সেকেন্ডে ৪০০ মিটার স্প্রিন্ট ইভেন্টে রৌপ্য পদক জেতেন। এশিয়ান গেমসে মহিলাদের ৪*১০০ মিটার স্প্রিন্ট ইভেন্ট এবং মিশ্রিত রিলে ইভেন্টে অংশগ্রহন করে তিনি দলীয়ভাবে বড় সফলতা অর্জন করেন। দুটো ইভেন্টেই ভারতীয় দল সোনা জেতে।

২০১৯ সালে ১৯ দিনের ইউরোপ সফরে তিনি পাঁচটি ধারাবাহিক সোনার মেডেল জয় লাভ করেন। ২০১৭ থেকে ২০১৯ এই তিন বছরের মধ্যে হিমা এখন পর্যন্ত নিজের সর্বোচ্চটা অর্জন করেছেন।

একজন মেধাবী জাতীয় স্প্রিন্ট দৌড়বিদ থেকে আন্তর্জাতিক স্তরে উন্নীত হওয়া এবং আরো ভালো ক্রীড়া ক্যারিয়ারের জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। একটি আন্তর্জাতিক ইভেন্টে স্বর্ণ জয়ীদের মধ্যে আসাম থেকে হিমা দ্বিতীয়। আসাম পুলিশ তাকে ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারীতে ডেপুটি সুপরিনটেনডেন্ট পদে অভিষিক্ত করেছে। তিনি জানিয়েছেন এর ফলে তার শৈশবের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে।

আজ #DalitHistory তে আমরা হিমা দাস নামক কিংবদন্তীকে সম্মানিত করছি!

কুশল বেনারস, উত্তর প্রদেশের একজন স্বতন্ত্র লেখক। তিনি ভারতের চিরাচরিত এবং আধুনিক সংস্কৃতির ইতিহাসের ব্যাপারে আগ্রহী। আপনি নিচের ইমেইল ও টুইটার অ্যাকাউন্টে তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনঃ kushalchoudhary007@gmail.com, @kushalpitfall

If you would like to report any issues with this translation, please write to us at dalithistorymonth@protonmail.com

References

https://www.indiatoday.in/sports/asian-games-2018/story/asian-games-2018-hima-das-silver-400m-national-record-1323068-2018-08-26

https://www.thehindu.com/sport/athletics/all-you-need-to-know-about-hima-das/article24408190.ece

https://www.india.com/sports/hima-dass-historic-gold-rejuvenates-her-assam-native-village-3173441/

https://timesofindia.indiatimes.com/sports/more-sports/athletics/hima-das-inducted-as-dsp-in-assam-says-will-continue-her-athletics-career/articleshow/81227833.cms

https://www.thestatesman.com/sports/hima-das-dhing-village-world-championship-golds-1502780958.html

https://en.wikipedia.org/wiki/Jalia_Kaibarta

Redefining the History of the Subcontinent through a Dalit lens. Participatory Community History Project

Redefining the History of the Subcontinent through a Dalit lens. Participatory Community History Project